কবিতা/গান

হে যুবক! তুমি জেগে উঠ

হে যুবক!
আর কতকাল ঘুমিয়ে কাটাবে, জাগবে না কি তুমি?
চেয়ে দেখ আজ পৃথিবীটা যেন ঈমানহীন মরুভূমি
পৃথিবীর বুকে ঘটছে কত অন্যায়-অবিচার
রাহাজানি, খুন, ধর্ষণ অশ্লীল কারবার।
হে যুবক!
তুমি থাকতে কেন মোদের অনাচার দেখতে হয়?
ভুলে কি গিয়েছ কোন জাতি তুমি, কি তোমার পরিচয়?
জাতির খ্যাতি ধূলায় উড়িয়ে করেছ একি হাল?
অশ্লীলতা বেহায়াপনায় হয়েছ বেসামাল।
আজকে তোমার রংচটা প্যান্ট টাখনুর নিচে ঝুলে
শার্ট গায়ে বুক খুলেছ রং করেছ চুলে।
ঠোঁটে তোমার স্থান পেয়েছে জ্বলন্ত সিগারেট
তোমায় দিয়ে পূরণ হ’ল শয়তানের টার্গেট।
স্থান পেয়েছে তোমার চোখে সানগ্লাস ঐ কালো
মস্ত বড় গুন্ডা সেজে ইবলীস হয়ে চল!
এ জীবন তোমার দ্বীনের পথে বিলিয়ে দিতে হ’ত
জা‘ফর, যায়েদ, খুবায়েব, হামযাহ, আম্মারের মত।
কাফিররা কেটে টুকরা করেছে শহীদ হামযার লাশ
ভুলে যেও না বিন রাওয়াহার শহীদী ইতিহাস।
আল্লাহর দ্বীনকে করতে ক্বায়েম হানযালা যে ছুটে
সদ্য বিবাহিতা স্ত্রী ঘরে তার খেয়াল নেই সেদিকে মোটে।
রণক্ষেত্রে হানযালা হায় শহীদ হয়ে যায়,
নববধূ নিয়ে ঘর বাঁধার আর সুযোগ হ’ল না তায়।
ক্ষুধার তাড়নায় আবু হুরায়রা মাটিতে থাকতেন পড়ে
পদদলিত করত লোকেরা তাকে পাগল মনে করে।
রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর ঘরে আগুন জ্বলেনি বহুদিন  বয়ে যায়
জীবন থাকতে পেট পুরে তিনি খাবার খাননি হায়!
হে যুবক!
আজ যে তুমি ভোগ-বিলাসে জড়িয়ে গেছ খুব
দিনে দিনে কেবল বাড়ছে তোমার অর্থ-সম্পদের লোভ।
শেয়ার ব্যবসা, এম.এল.এম-এ যোগ দিয়েছ তাই
হালাল-হারাম বিচার করার জ্ঞান কি তোমার নাই?
লক্ষ-কোটি টাকা দিয়ে লাভ কি তোমার হবে?
ছাহাবীদের চেয়ে উন্নত তুমি কি হ’তে পারবে?
পূর্ব আকাশের সূর্য যেমন অাঁধার মাড়িয়ে জ্বলে
পঙ্কিলতা দূরে ঠেলে দাও ঈমানী আলোর বলে।
জাতির প্রদীপ হয়ে আবারো তোমায় জ্বলতে হবে
প্রয়োজন হ’লে জীবন দিতে প্রস্ত্তত তুমি রবে।
আর দেরী নয় জেগে উঠ তুমি ধর ঈমানের হাল
পৃথিবীর বুকে বুনে দাও তুমি দৃঢ় ঈমানী জাল।

আরও দেখুন:  প্রার্থনা

-তামান্না বিনতে আব্দুল মতীন
কোরপাই, বুড়িচং, কুমিল্লা।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Back to top button