নির্বাচিত ফেসবুক স্ট্যাটাস

হুজুর জীবন আপনাদের চলছে, তবে রাসূলের (সা) চলা রাজপথে আপনারা চলছেন না

দুইজনের কথোপথন শুনতেছিলাম। একজন আমার মত। লম্বা জুব্বা, সুন্দর পাওয়ার চশমা, বেশ দামীই। উপরে শিরওয়ানি আছে। এক প্রোগ্রামে এসেছি আমরা। আমাদের দেখে এক টিনটিনে ভদ্র লোক আমাদের পাশে এসে বসলেন। আমার মত দেখতে হুজুরের সাথে এমন ভাবে কথা বলা শুরু করলেন যাতে তাদের গভীর আত্মীয়তার জানান দেয়।

বরাবরের মত বাংলাদেশীরা বসলেই আলোচনা শুরু হয় রাজনীতি নিয়ে। আমি আবার রাজনীতির এক্কেবারে শিশুশ্রেনীর। ফলে আমার কানটা উনাদের দিকে দিয়ে বাকি সব গুলোকে স্মার্টফোনের স্ক্রীনে জমাটবদ্ধ করে দিলাম।

হুজুর, এই যে আপনারা এতো তেলে ঝোলে খেয়ে শরীর বানায়েছেন এতে বুঝা যায় আপনারা দ্বীনের সঠিক পথে নেই। হুজুর হেসে বললেনঃ তোমাদের বোন খাওয়ায়ে খাওয়ায়ে এই করেছে।

হুজুর, সব করেন অথচ রাজনীতি করেন না, এতেই বুঝা যায় আপনারা আংশিক ইসলাম নিয়ে আছেন। হুজুর স্বভাবসিদ্ধ কোমলতা নিয়ে বললেনঃ তোমরা তো রাজনীতি করে যাচ্ছো, আলহামদুলিল্লাহ, ঐটাই তো ফরয আদায় হয়ে যাচ্ছে। আমরা তোমাদের সমর্থন করি, সাহায্য করি। ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে সারা দুনিয়ায় বক্তৃতা দিই, এটাও তো তোমাদের অনেক কাজে লাগে।

হুজুর, এই যে আমাদের নবীর (সা) জীবন যদি আমরা দেখি। তিনি উটের নাড়ি ভূঁড়ির পাথার সরিয়ে, তারিকুল হিজরাতের পাথুরে পথ মাড়িয়ে, বদর অহুদ খন্দক ও খায়বারের অসহ বিগ্রহ সয়ে সয়ে চলে গেলেন। আপনি যদি তাঁর পথেই চলতেন তাহলে আপনার জীবনেও সেই রকম আসতো, অথচ আপনি কত আরামে দেশে দেশে ওয়াজ করে বেড়ান, আর খেয়ে খেয়ে কি সুন্দর একখান শরীর বানালেন। আসলে হুজুর আপনাদের নিয়ে আমার ভয় হয়। জীবন আপনাদের চলছে, তবে রাসূলের চলা রাজপথে আপনারা চলছেন না

আমার মত দেখতে হুজুর এবার নড়ে চড়ে উঠলেন। বললেনঃ শালা সাহেব, খুব তো বলতেছেন এই ইউরোপে এসে। কি সুন্দর বাড়ি গাড়ি করেছেন। সংসারে সুখ আর সমৃদ্ধির কাতুকুতু। গত ৮ টা বছর ঘরে ঘুমাতে পারিনা মাহফিলে মাহফিলে কিছু হক্ব কথা বলি বলে। এত যে বড় বড় কথা বলছেন, বদর অহুদ খন্দক আপনার জীবনে তো দেখছিই না। আমার জীবনে তো অন্তত শে’বে আবু তালেব এসেছে অথচ আপনার??

আরও দেখুন:  তারুণ্যের আলোচিত দুইটা বিষয়: জিহাদ এবং বিয়ে

কথা গুলোর ওজন, গন্ধ, ও উষ্ণতা আমার চোখে, নাকে ও মুখে লাগলো। আমি দুইজনের দিকে তাকালাম। তাদের আত্মীয়তার ফাঁকেও যেন কি একটা গুমড়ে মরতেছে। কে যে সঠিক বুঝতেছিনা। আমার কাছে মনে হলো দুইজন ই ভালো বক্তা।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button