সংবাদ

ইংল্যান্ড জুড়ে সমকামী পুরুষদের মধ্যে ‘সুপার-গনোরিয়া’ ছড়িয়ে পড়ছে

ইংল্যান্ড-জুড়ে সমকামী পুরুষদের মধ্যে ‘সুপার-গনোরিয়া’ ছড়িয়ে পড়ায় আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

সুপার-গনোরিয়ার জন্য দায়ী নতুন ধরণের জীবাণুর প্রকোপ গত বছর লিডস শহরে দেখা দেয় এবং বর্তমান চিকিৎসা পদ্ধতিগুলোর একটি এই জীবাণুর বিরুদ্ধে অকার্যকর প্রমাণ হলে দেশজুড়ে জাতীয় সতর্কতা জারি করা হয়।

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড স্বীকার করে নিয়েছে যে নতুন এই এন্টিবায়োটিক-নিরোধী জীবাণুটির ব্যাপক ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে নেয়া উদ্যোগ খুব একটা সফল হয়নি।

এই রোগটি মূলত যৌন সংস্রবের মাধ্যমে ছড়ায় এবং রোগটির কারণে আক্রান্তরা প্রজননক্ষমতা হারিয়ে ফেলে।

চিকিৎসকেরা বলছেন রোগটি শীঘ্রই পুরোপুরি অনিরাময়যোগ্য হয়ে পড়তে পারে।

ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস, লন্ডন এবং দক্ষিণ ইংল্যান্ডে এখন পর্যন্ত সুপার-গনোরিয়ায় আক্রান্ত মানুষ চিহ্নিত হয়েছে।

গবেষণাগারের পরীক্ষায় এখন পর্যন্ত মাত্র ৩৪ জন আক্রান্তের কথা নিশ্চিত হওয়া গেছে, কিন্তু ধারণা করা হচ্ছে বাস্তব পরিস্থিতি অনেক ব্যাপক।

প্রথমদিকে যারা বিপরীত লিঙ্গের সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করছে শুধু তাদের মধ্যেই এই রোগের প্রকোপ দেখা গেলেও এখন দেখা যাচ্ছে পুরুষ সমকামীরাও সুপার-গনোরিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে।

যেহেতু পুরুষ সমকামীরা খুব দ্রুত সঙ্গী পরিবর্তন করে সেহেতু তাদের মধ্যে এই রোগ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কাও বেশী, বলছিলেন ব্রিস্টলের একজন যৌন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ পিটার গ্রিনহাউজ।

গনোরিয়ার জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়া খুব দ্রুত এন্টিবায়োটিক-নিরোধী হতে সক্ষম।

এখন এই রোগের জন্য এজিথ্রোমাইসিন এবং সেফট্রিয়াক্সোন একযোগে ব্যবহার করা হচ্ছে।

কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে এজিথ্রোমাইসিন এই ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে আর কাজ করছে না।

চিকিৎসকেরা ভয় পাচ্ছেন অচিরেই সেফট্রিয়াক্সোনও হয়তো গনোরিয়ার ব্যাকটেরিয়াকে দমন করার সক্ষমতা হারাবে।

BBC

আরও দেখুন:  প্রথম শ্রেণির পাঠ্যবইয়ে ওড়না-বিতর্ক

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button