সংবাদ

প্রথম খলিফার আমলেই সংকলিত বার্মিংহামের সেই কুরআন!

যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পাওয়া ‘সবচেয়ে পুরোনো’ কোরআন শরিফের অংশবিশেষ নিয়ে আরেক দফা চমকপ্রদ খবর দিয়েছেন গবেষকেরা। তাঁরা মনে করছেন, ইসলামের প্রথম খলিফা হজরত আবু বকর (রা.)-এর গঠিত কোরআন সংকলন পরিষদ যে সংকলনটি করেছিল, বার্মিংহামের এই কপি সেটিরই একটি অংশ। খবর বিবিসির।

গবেষকেরা বলেছেন, নতুন রেডিও কার্বন পরীক্ষার ফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, পবিত্র কোরআনের এই কপিটি লেখা হয়েছিল ৫৬৮ থেকে ৬৪৫ সালের মধ্যবর্তী সময়ে। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ইন্তেকাল করেন ৬৩২ খ্রিষ্টাব্দে। মহানবী (সা.)-কে চাক্ষুষ দেখেছেন বা তাঁর সংস্পর্শে ছিলেন এমন কোনো সাহাবির হাতেই এটি লিপিবদ্ধ হয়েছিল বলে মনে করা হচ্ছে।

গবেষকেরা বলেছেন, মিসরের ফুসতাত শহরে অবস্থিত দেশটির প্রাচীনতম আমর ইবন আল আস মসজিদই হলো এই প্রাচীন কোরআনের আদি উৎস।

পণ্ডিতদের একটি বড় অংশ মনে করছেন, ফ্রান্সের জাতীয় গ্রন্থাগারের মহাফেজখানায় প্রাচীন কোরআনের যে অংশটি সংরক্ষিত আছে, বার্মিংহামে পাওয়া অংশটি তারই আরেকটি অংশ। ফ্রান্সের বিশেষজ্ঞ ফ্রাঁসোয়া দরুশ বলেছেন, তিনি প্রায় নিশ্চিত, ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্যে থাকা দুটি অংশ অভিন্ন কপি থেকে নেওয়া।

আলবা ফিডেলি নামের যে গবেষক প্রথম বার্মিংহাম থেকে পবিত্র কোরআনের অংশটি উদ্ধার করেন, তিনিও একই কথা বলেছেন। অবশ্য প্যারিসে থাকা অংশটির এখনো রেডিও কার্বন পরীক্ষা হয়নি।

প্রত্নতাত্ত্বিক ও ঐতিহাসিক গবেষণার ভিত্তিতে গবেষকেরা বলছেন, ঊনবিংশ শতকের গোড়ার দিকে মিসরে দায়িত্বরত ফরাসি প্রতিনিধিই প্রাচীন কপিটি প্রথম প্যারিসে নিয়ে আসেন। মিসর তখন ফরাসি নৃপতি নেপোলিয়নের শাসনাধীন।

গবেষক ফ্রাঁসোয়া দরুশ বলেন, মিসরে নিযুক্ত ওই ফরাসি কর্মকর্তার মৃত্যুর পর ১৮২০ সালে তাঁর স্ত্রী কপিটি ব্রিটিশ লাইব্রেরিতে বিক্রি করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা প্যারিসেই থেকে যায়।

বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিশ্চিয়ানিটি অ্যান্ড ইসলাম বিষয়ের অধ্যাপক ডেভিড টমাস বলেছেন, পবিত্র কোরআনের এই আয়াতগুলো যিনি লিপিবদ্ধ করেছিলেন, তিনি সম্ভবত মহানবী (সা.)-কে খুব কাছ থেকে চিনতেন এবং তাঁর ঘনিষ্ঠজন ছিলেন।

আরও দেখুন:  সিরিয়া থেকে ৫০ টন স্বর্ণ পাচার করেছে যুক্তরাষ্ট্র

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের রেডিও কার্বন এক্সিলারেটর ইউনিটের গবেষক ডেভিড শিভাল প্রাচীনত্বের পরীক্ষার নির্ভুলতার ব্যাপারে বলেছেন, এটি প্রায় ৯৫ শতাংশ নির্ভুল।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের শিক্ষাবিষয়ক প্রতিষ্ঠান মোহাম্মাদ বিন রশিদ আল মাকতুম ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জামাল বিন হুয়ারিব সম্প্রতি বার্মিংহামে ওই কোরআনের কপিটি দেখতে যান। নতুন গবেষণার ফলকে সমর্থন করে তিনি বলেছেন, বিশেষজ্ঞদের একটা বড় অংশের মতো তিনিও মনে করেন, প্রথম খলিফা (খিলাফতকাল: ৬৩২ থেকে ৬৩৪ সাল) হজরত আবু বকর (রা.)-এর নির্দেশে গঠিত কোরআন সংকলন পরিষদ যে সংকলনটি করেছিল, বার্মিংহামের এই কপি সেটিরই একটি অংশ।

ইসলাম ধর্মমতে, মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর মাধ্যমে পবিত্র কোরআন ৬১০ থেকে ৬৩২ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত ধাপে ধাপে নাজিল হয়।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button