সংবাদ

পেশী এবং নার্ভের ক্ষতি করে আঁটসাঁট জিন্স

আঁটসাঁট জিন্স পরার বিরুদ্ধে সতর্ক করে দিয়ে চিকিৎসকরা বলেছেন, এরকম পোশাক শরীরের পেশী এবং নার্ভের ক্ষতি করতে পারে।

সম্প্রতি ৩৫ বছরের এক মহিলার পায়ের গোড়ালি ফুলে ঢোল হয়ে যাওয়ার পর তার পরনের আঁটসাঁট জিন্সের ট্রাউজার ডাক্তারদের কাঁচি দিয়ে কেটে খুলে নিতে হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার এই মহিলা বাড়ি বদলের জন্য তার ঘরের জিনিসপত্র গোছানোর সময় দীর্ঘক্ষণ মাটিতে পা মুড়ে বসে কাজ করছিলেন। সন্ধ্যা নাগাদ তার পা পুরোপুরি অবশ হয়ে যায়। তখন তিনি আর হাঁটতে পারছিলেন না।

জার্নাল অব নিউরোসার্জারি অ্যান্ড সাইক্রিয়াট্রিতে চিকিৎসকেরা এই মহিলার ঘটনা উল্লেখ করে ‘স্কিনি জিন্স’ বা আঁটোসাঁটো জিন্সের পোশাক পরার বিরুদ্ধে সতর্ক করে দিয়েছেন। সূত্র : বিবিসি

চিকিৎসকদের ধারণা এই মহিলা ‘কম্পার্টমেন্টে সিনড্রোমে’ আক্রান্ত হয়েছিলেন। শরীরের একগুচ্ছ পেশী রক্তপাত এবং ফুলে যাওয়ার কারণে যে অবস্থার তৈরি হয় তাকেই চিকিৎসকরা ‘কম্পার্টমেন্টাল সিনড্রোম’ বলেন। এটি বেশ গুরুতর রূপ নিতে পারে।

স্কিনি জিন্স গত এক দশক ধরে অনেক মেয়েদের কাছে খুবই জনপ্রিয় পোশাক। তবে এরকম পোশাকের বিরুদ্ধে এই প্রথম চিকিৎসকদের কাছ থেকে সতর্কবাণী শোনা গেল।

[ইসলামের বিধান চির কল্যাণকর। তাইতো এ ধরণের পোষাক ইসলামী দৃষ্টিকোণে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।]

আরও দেখুন:  ক্যাডবেরি চকোলেটে শূকরেরউপাদান, মালয়েশিয়ায়ক্ষোভ

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button