সংবাদ

সবচেয়ে বেশি সময় রোজা হয় যেসব দেশে

বিশ্বের উত্তরাঞ্চলীয় দেশগুলোতে গ্রীষ্মকালে দিনের আলো থাকে বেশিরভাগ সময়। কারণ বছরের এই সময়টা পৃথিবীর এই দিকটা সূর্যের দিকে হেলে থাকে। আর তাই গ্রীষ্মকালে এই দেশগুলোতে রোজার সময় অন্য সব অঞ্চল থেকে বড় হয়। নিশীথ সূর্যের দেশ নরওয়ের কথাই ধরা যাক।   
নরওয়েতে মোট জনসংখ্যার ১.৮ শতাংশ মুসলমান। অর্থাৎ দেশটিতে ৯০ হাজারের বেশি মুসলমান বসবাস করে। দেশটিতে ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় দিনের আলো থাকে। 
আর রমসো শহরে তো গ্রীষ্মকালে সূর্যই ডুবে না। মে মাসের শেষ থেকে জুলাইয়ের শুরু পর্যন্ত রাত বলে কিছুই থাকে না। 
তাহলে এ অঞ্চলগুলোতে রোজার সময় সেহরি ও ইফতারির সময় নির্ধারণ হবে কিভাবে?
বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদরা জানিয়েছেন, ওই সব অঞ্চলের বাসিন্দারা চাইলে নিকটবর্তী কোনো শহরের অথবা দেশের সময় অনুয়ায়ী সেহরি ও ইফতার করতে পারেন। তবে শর্ত একটাই পার্শ্ববর্তী ওই দেশটির ‘দিন ও রাতের মধ্যে সামঞ্জস্যপূর্ণ পার্থক্য’ থাকতে হবে। 
এছাড়া তারা চাইলে পবিত্র নগরী মক্কা অথবা মদিনার সেহরি ও ইফতারের সময় অনুসরণ করতে পারেন বলে জানিয়েছেন ইসলামী চিন্তাবিদরা। 
এছাড়া বিশ্বের অন্যান্য উত্তরাঞ্চল যেমন যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা, রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবাগ ও ফিনল্যান্ডের হেলসিনকিতে একই অবস্থা দেখা যায়। সেখানে ২০ ঘণ্টার বেশি রোজা হয়।  
সংযুক্ত আরব আমিরাতের বার্তা সংস্থা ডব্লিউএএম দেয়া তথ্য মতে, এবার সবচেয়ে বড় রোজা হবে নরওয়ের রনডেম শহরে। সেখানে ২১ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট রোজা হবে। শহরটিতে সেহেরি শেষ হবে স্থানীয় সময় ভোর ১টা ৩৯ মিনিটে। ইফতার সন্ধ্যা ১১টা ৩৪ মিনিটে। ইফতার আর সেহেরির সময়ের ব্যবধান মাত্র দুই ঘণ্টার। বাকি সময়টা রোজা রাখার। এরপর আছে দেশটির আরেকটি শহর হারস্টেড। সেখানে রোজার সময় ২১ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট। ফজর স্থানীয় সময় ভোর ১টা ৫১ মিনিটে। মাগরিব সন্ধ্যা ১১টা ২৭ মিনিটে। 
যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা রাজ্যের অ্যাকোর‌্যাগ শহরে রোজা হবে ২০ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট। এখানে সেহেরির শেষ সময় স্থানীয় রাত ২টা ৫৫ মিনিটে আর ইফতার সন্ধ্যা ১১টা ৪০ মিনিটে। রোজার সময়ের ব্যাপ্তির তালিকায় তারপরের অবস্থানে আছে রাশিয়ার সেন্ট পিটারসবার্গ। সেখানে রোজা ২০ ঘণ্টা ১৪ মিনিট। ফজর শুরু ভোর ৩টা ১০ মিনিটে। মাগরিব সন্ধ্যা ১১টা ২৪ মিনিটে। লন্ডনে রোজা ১৮ ঘণ্টা ৫ মিনিট। ফজর ভোর সোয়া ৩টায় এবং মাগরিব সন্ধ্যা ৯টা ২১ মিনিট। 
সূত্র : গালফ নিউজ।

আরও দেখুন:  প্রথম মসজিদ চালু হচ্ছে এথেন্সে

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button