সচেতনতা

দুই মিনিটের কাজ

আমার দুই বাচ্চাকে কিছু একটা লিখতে দিয়েছিলাম। একজন খুব দ্রুত লেখা শেষ করেছে, অপরজনের একটু দেরি হয়েছে। যার লেখা শেষ হয়েছে সে অন্যজনকে বলছে, ‘এখনও তোমার লেখা শেষ হয়নি! এটা তো আমার এক মিনিটের কাজ!’

ঝট করে কথাটা কানে লাগলো! আসলেই আমাদের এমন কিছু কাজ আছে যা করতে আক্ষরিক অর্থেই এক কি দুই মিনিট লাগে!

আজ কথা বলা যাক আমাদের ঘর-গেরস্থালির এমন কিছু কাজ নিয়ে, যা করতে সর্বোচ্চ দুই মিনিট লাগে।

১। ঘুম থেকে উঠে বিছানা উঠিয়ে/গুছিয়ে ফেলা।

২। সকালে চুল আঁচড়ে পরিপাটি হওয়া।

৩। নামাজ শেষে নামাজের আনুষঙ্গিক পোশাক, জায়নামাজ জায়গামতো রাখা।

৪। ঘরের অপ্রয়োজনীয় লাইট, ফ্যানের সুইচ অফ করা।

৫। ঘরের ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা খেলনা গোছানো।

এই কাজ বাচ্চাদের দিয়েও করানো যায়। দুইজন বাচ্চা হলে দুইটা ঝুড়ি নিয়ে তাদেরকে একটা প্রতিযোগিতায় নামানো যায়, যে কম সময়ে বেশি খেলনা গোছাবে তাকে একটা আদর বেশি করা হবে, অথবা তার পছন্দের নাস্তা বানানো হবে। আর একজন বাচ্চা হলে আপনি তার সাথে প্রতিযোগিতা করবেন। কখনো সে জিতবে, কখনো আপনি জিতবেন, এতে করে খেলায় হারজিত থাকে এই বিষয়টাও তার শেখা হবে ইন শা আল্লাহ।

৬। চা-কফি বানানোর পর যাবতীয় সরঞ্জাম ধুয়ে জায়গামতো তুলে রাখা।

৭। একজনের খাওয়া একটা চায়ের কাপ, একটা নাস্তার প্লেট, একটা পানির গ্লাস, তেল-মশলা না লাগা একটা বাটি ধুয়ে রাখতে এক মিনিটের বেশি লাগে না আলহামদুলিল্লাহ, কিন্তু সিংকে থালাবাসনের পাহাড় হওয়া রোধ করে।

৮। জানালাগুলো সকালে খুলে দেওয়া বা জানালার পর্দা সরিয়ে দেওয়া। তেমনি সন্ধ্যায় জানালা লাগিয়ে দেওয়া।

৯। রান্নাঘরে কাজ করার সময় রান্না হতে হতে প্রয়োজন শেষ হওয়া মশলার কৌটা তুলে রাখা।

১০। ফ্ল্যাট সারফেস বা টেবিল/কাউন্টারটপ গুছিয়ে রাখা বা হালকা ধুলা ঝেড়ে নেওয়া।

১১। ফ্রিজের খালি বক্স, বাটি, মেয়াদোত্তীর্ণ খাবার বের করা।

১২। ময়লার ঝুড়ি পরিষ্কার করা।

১৩। ঘরের সবার ব্রাশ করা ও মুখ ধোয়া হয়ে গেলে ওয়াশ বেসিন দ্রুত ক্লিন করা।
এজন্য পরিষ্কারের আইটেমগুলো গুছিয়ে হাতের নাগালে একটা বক্সে রাখলে সহজে কাজ শেষ করা যায়।

১৪। পানির ফিল্টার/জগ/বোতলে পানি ভরে রাখা।

১৫। রাতে ঘুমানোর আগে ঘরের দরজা-জানালা, অপ্রয়োজনীয় বাতি, অন্যান্য সিকিউরিটি চেক করা।

কাজগুলো করা সহজ এবং সময়ও অতিরিক্ত খরচ হয় না। কিন্তু আলসেমি, অন্য সময়ের জন্য রেখে দেওয়া, আবার “আমার কাজ না”–এ ধরনের মানসিকতার জন্য ঘর অগোছালো মনে হয়, আর কাজের পাহাড় জমেই যায়।

রৌদ্রময়ী টিম

ইসলামিক ইমেইল নিউজলেটার
নতুন পোস্ট প্রকাশিত হলে সরাসরি আপনার ই-মেইল ইনবক্সে পেতে সাবস্ক্রাইব করুন।
icon

মন্তব্য করুন

Back to top button