সংবাদ

ভোজ্যতেল, মাছ ও মুরগির খাবারে শূকরের মাংস-চর্বি, ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা

ঢাকার ধামরাইয়ের কেবিসি এগ্রো প্রোডাক্টস প্রাইভেট লিমিটেড নামের ভোজ্যতেল তৈরি কারখানায় নিষিদ্ধ উপকরণ ব্যবহারের দায়ে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা করে কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ৩ হাজার মেট্রিক টন নিষিদ্ধ শূকরের মাংস, চর্বি ও হাড় জব্দ করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত। নিষিদ্ধ শূকরের মাংস, চর্বি ও হাড়ের মূল্যের ১১ কোটি টাকা।

মেয়াদোত্তীর্ণ রাইস ব্রান তেল নতুন করে মেয়াদ বসিয়ে পুনরায় বাজারজাত করাসহ আমদানি নিষিদ্ধ শূকরের চর্বি ও মাংস দিয়ে পোল্ট্রি ফিড ও গবাদি পশুর খাদ্য উৎপাদন করায় ঢাকার ধামরাইয়ের কেবিসি এগ্রো প্রোডাক্টস প্রাইভেট লিমিটেডকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ধামরাইয়ের বাথুলি এলাকায় র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান চালায় র‌্যাব-৪ ও প্রাণিসম্পদ অধিদফর।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম জানান, প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন ধরে হেলথ কেয়ার নামে রাইস ব্রান তেল বাজারজাত করে আসছে। প্রতিষ্ঠানটির বাজারজাত করা তেলের বোতল মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেলে প্রতিষ্ঠানটি কৌশলে সেসব মেয়াদোত্তীর্ণ তেল সংগ্রহ করে কারখানায় নিয়ে এসে নতুন করে মেয়াদ ও লেবেল বসিয়ে পুনরায় বাজারজাত করে আসছিল। এছাড়া দেশে শূকরের চর্বি ও মাংস আমদানি নিষিদ্ধ থাকলেও তারা আমাদানি নিষিদ্ধ ওইসব শূকরের চর্বি ও মাংস দিয়ে পোল্ট্রি ফিড ও গবাদি পশুর খাদ্য উৎপাদন করে আসছিল। এসব অনিয়মের কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আমাদানি নিষিদ্ধ শূকরের চর্বি ও মাংস যারা আমদানি করে এই প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করেছে তাদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এ অভিযানে প্রায় ৩ হাজার মেট্রিক টন শূকরের চর্বি ও মাংস জব্দ করা হয়।

আরও দেখুন:  মহারাষ্ট্রে গরু জবাই সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Back to top button