সংবাদ

যে গ্রামে আজান দেয়া নিষেধ

হাঙ্গেরির প্রত্যন্ত এক গ্রামে ‘মুসলিম পোশাক’ পরা, আজান দেয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একইসঙ্গে বন্ধ করা হয়েছে সমকামীদের প্রবেশও। গ্রাম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ‘সাংস্কৃতিক বহুত্ববাদ’ এবং ‘মুসলিম সংস্কৃতির’ বিরুদ্ধে লড়াই করতেই তাদের এ সিদ্ধান্ত। আলোচিত ওই গ্রামের নাম এ্যাজোথালোম। খবর বিবিসির।

গ্রামটির আইন অনুযায়ী, হিজাব, আজান ও সমকামীদের নিষিদ্ধ করা হয়েছে। মসজিদ নির্মাণ নিষিদ্ধ করার জন্য আইনে পরিবর্তন আনা হচ্ছে। স্থানীয়দের অনেকেই এই আইনে সমর্থন জানালেও একাধিক আইনজীবী বলেছেন, এসব আইন হাঙ্গেরির সংবিধানের বিরোধী। এ ব্যাপারে সরকার ফেব্রুয়ারি মাসেই তাদের চুড়ান্ত মত জানাবে।

গ্রামটিতে মাত্র ২ জন মুসলিম বাস করেন। তারা বোরকা পরেন না, অন্যদের সাথেই মিলেমিশেই বসবাস করেন।

গ্রামের মেয়র লাৎসলো টোরোৎস্কাই বলছেন, গ্রামের ঐতিহ্য বজায় রাখতে চাই আমরা। মুসলিমরা এখানে এসে বসতি স্থাপনে সেটা নষ্ট হবে। পশ্চিম ইউরোপেের মুসলিম কমিউনিটি, খ্রিস্টান সমাজের সাথে যুক্ত হতে পারেনি। এখানে তা হোক তা আমরা চাই না। তিনি আরো বলেছেন, পশ্চিম ইউরোপ থেকে খ্রিস্টান এবং মাল্টিকালচারালিজম-বিরোধীদের এখানে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

RTV

আরও দেখুন:  স্বাস্থ্যসেবায় মুসলিম বিশ্বে সেরা কাতার (বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের চেয়েও এগিয়ে)

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button