সাম্প্রতিক প্রসঙ্গ

রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের স্বার্থান্বেষী মহলের সব-ই ভারতীয়

রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের স্বার্থান্বেষী মহলের সব-ই ভারতীয়।

মালিকানায় ৫০% বাংলাদেশের পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের (PDB) আর ৫০% ভারত সরকারের মালিকানাধীন ন্যাশনাল পাওয়ার করপোরেশন লিমিটেড (NTPC)।

প্রকল্পটি বানানোর কাজ পেয়েছে ভারত হেভি ইলেকট্রিকালস লিমিটেড (BHEL)।

তবে বিনিয়োগ সমান নয়। প্রকল্পের প্রায় ৭০% অর্থাৎ প্রায় ১২,২৭৫ কোটি টাকা বাংলাদেশকে ঋণ হিসেবে দিচ্ছে ভারত সরকারের মালিকানাধীন এক্সিম ব্যাঙ্ক। আর বাকি ৩০% টাকা দিচ্ছে দুই মালিক কোম্পানি।

১২,২৭৫ কোটি টাকা কত টাকা?

বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষের সবার মাথার ওপর ৭২২ টাকা ঋণ আসবে শুধু এই একটা প্রকল্পে! যে বাচ্চাটা আজ জন্মাবে সে জন্মাবে ঋণী হয়ে।

রামপালে বিদ্যুৎ উৎপাদনের খরচ হবে বর্তমান উৎপাদন খরচের চেয়ে ৬২ শতাংশ বেশি দরে। কিনতে হবে বাংলাদেশকেই।

সরাসরি ১৮৩৪ একর জায়গা জুড়ে বন নির্মূল হবে। ধোঁয়া-ছাইয়ে বাকি বনের কী অবস্থা হবে আল্লাহই জানেন।

মজার ব্যাপার ভারত সরকার এমন একটা সময়ে এই উদ্যোগ নিচ্ছে যখন সে নিজেই তাপ-বিদ্যুত থেকে সরে আসছে। তারা কয়লা নির্ভর প্রকল্প বাদ দিয়ে সৌর বিদ্যুতের দিকে ঝুঁকছে। ২০২২ সাল নাগাদ তাদের লক্ষ্য সৌর বিদ্যুৎ থেকে ১৭৫ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা।

যেহেতু দাদারা বাংলাদেশকে ভালোবাসবেই, পালিয়ে যাওয়ার কোনো উপায় নেই; তাই দাদাদের প্রতি আহবান — কয়লা বিদ্যুৎ দিয়ে ভালো না বেসে কি সৌর বিদ্যুৎ দিয়ে ভালোবাসা যায় না?

অন্তত পরিবেশের দিক দিয়ে বাংলাদেশ একটু কম জখম হতো।

– শরীফ আবু হায়াত অপু

আরও দেখুন:  ছাহাবী ও তাবেঈগণের যুগে মহামারী ও তা থেকে শিক্ষা

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button