স্বাস্থ্য তথ্য

সর্দি-কাশির ঘরোয়া প্রতিকার

অতিরিক্ত গরম, বৃষ্টি বা ঠান্ডা। সর্দি, কাশির মতো সমস্যা দেখা দেয় বছরের যেকোনও মৌসুমেই। যেকোনও বয়সেই সর্দি-কাশির হাত থেকে রেহাই পেতে বেশ বেগ পেতে হয়। ডাক্তারের কাছে না গিয়ে কিছু ঘরোয়া টোটকার সাহায্যেই কিন্তু এই সমস্যা কাটিয়ে ওঠা যায়-

১। দুধ ও হলুদঃ এক গ্লাস গরম দুধের মধ্যে ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে খান। এই দুধ বাচ্চা থেকে বুড়ো, যেকোন বয়সের জন্যই উপকারী। হলুদের অ্যান্টি ভাইরাল, অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল গুণ সহজেই সংক্রমণ রোধ করতে পারে।

২। আদা চাঃ সর্দি-কাশির সঙ্গে মোকাবিলা করতে আদা অব্যর্থ। আদা কুচি করে গরম জল বা গরম চায়ে দিয়ে পান করুন। সর্দি, কাশির সঙ্গে গলা খুসখুস করার মতো সমস্যাও কমে যাবে।

৩। লেবু ও মধুঃ আদা চায়ের মতোই অত্যন্ত উপকারী লেবু ও মধুর মিশ্রণ। এক গ্লাস গরম জলে ২ চা চামচ মধু ও ১ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে সর্দি কাশি থেকে দূরে থাকা যাবে।

৪। তুলসি পাতা ও আদাঃ সর্দি-কাশি দূর করতে এক অব্যর্থ জুটি তুলসি পাতা ও আদা। ১ কাপ জলে কয়েকটা তুলসি পাতা ও আদা কুচি ফেলে ফোটাতে থাকুন। জল ফুটে পরিমাণ যখন অর্ধেক হয়ে আসবে তখন পান করুন। এই জল দিনে অন্তত ২ বার পান করলে সর্দি কাশি কমে যাবে।

৫। রসুনঃ রসুনের মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমান অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট সর্দি-কাশির মোকাবিলা করতে পারে। এছাড়াও রসুনের মধ্যে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি ভাইরাল ও অ্যান্টি-ফাংগাল অ্যালিসিন সংক্রমণ রুখতে পারে। ৪-৫ কোয়া রসুন ঘিয়ে নেড়ে নিয়ে গরম থাকতে থাকতে খেয়ে নিন। ঘিয়ে ভাজা রসুন সুপের সঙ্গে মিশিয়ে খেলেও আরাম পাবেন।

আরও দেখুন:  করোনা ভাইরাস: উৎপত্তি, প্রতিকার ও সতর্কতা

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button