নও মুসলিম

হজ করলেন ইসলাম-বিদ্বেষী ছায়াছবি ফিতনা’র নির্মাতা

এক সময়ের ইসলাম-বিদ্বেষী ডাচ নেতা ও ইসলাম-বিদ্বেষী ছায়াছবি ‘ফিতনা’র নির্মাতা আর্নোড ভ্যান দুর্ন কয়েক মাস আগে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর এবার হজ করলেন।

নেদারল্যান্ডের উইল্ডার্স ফ্রিডম পার্টির সাবেক সদস্য দুর্ন বলেছেন, সম্প্রতি শেষ হওয়া হজ পালনের সময় তিনি প্রশান্তি অনুভব করেছেন।

তিনি বলেছেন, আমি নিজেকে খুজে পেয়েছি এই বিশ্বাসীদের (হাজিদের) হৃদয়ে।

‘আমি আশা করি, তওবার পর অনুতাপে ঝরে পড়া আমার চোখের পানি আমার সব গোনাহ ধুয়ে ফেলবে’- দুর্ন যখন এই আশাবাদী মন্তব্য করছিলেন তখন তার চোখ বেয়ে ঝরে পড়ছিল অশ্রু।

ইসলাম সম্পর্কে ব্যাপক পড়াশুনার পর চলতি বছরের গোড়ার দিকেই দুর্ন এই ধর্ম গ্রহণ করেন।

উগ্র ফ্রিডম পার্টির সাবেক এই সদস্যসহ আরো কয়েকজন দলীয় নেতা ফিতনা নামক ছায়াছবি নির্মাণে সহায়তা যুগিয়েছিলেন। এই ছায়াছবিতে বিশ্বনবী (সা:) ও ইসলাম সম্পর্কে ভুল ধারণা দেয়া হয়েছে এবং ইসলাম ও কুরআনকে সহিংসতার সঙ্গে জড়ানো হয়েছে।

এ ছায়াছবি নিয়ে মুসলমানরা ব্যাপক প্রতিবাদ করায় দুর্ন ইসলাম ও বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) সম্পর্কে ব্যাপক পড়াশুনা শুরু করেন এবং এ ধর্মের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন।

তিনি আরো বলেছেন, বিশ্বনবী (সা.)’র ব্যক্তিত্ব ও ইসলামের সঠিক চিত্র যথাযথভাবে তুলে ধরার জন্য একটি ছায়াছবিও নির্মাণ করবেন তিনি।

দুর্ন বলেছেন, হজে আসার পর তিনি জীবনের শ্রেষ্ঠ দিনগুলো কাটিয়েছেন। বিশ্বনবী (সা.)’র পবিত্র মাজার অধ্যুষিত মদীনা নগরীতে আরো বেশি সময় থাকার আশা ব্যক্ত করে দুর্ন বলেছেন, হজ শেষে এই পবিত্র শহরে ফিরে যাওয়ার দৃঢ় সংকল্প রয়েছে তার।

নেদারল্যান্ডের এক কোটি ৬০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে দশ লক্ষ মুসলমান রয়েছে। তবে তাদের বেশির ভাগই হলেন তুর্কি ও মরোক্কোর মুসলিম বংশদ্ভুত নাগরিক।
গত কয়েক বছরে খাস ডাচ মুসলমানের সংখ্যা ১২ হাজার থেকে বেড়ে প্রায় ১৫ হাজার হয়েছে।

ফিতনা ছায়াছবিতে ভূমিকা রাখার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এই পাপ মোচনের জন্য আমি পবিত্র স্থানগুলোতে এসেছি।

আরও দেখুন:  লক্ষাধিক মানুষকে ইসলামের আলোয় আলোকিত করলেন হিন্দু থেকে মুসলিম সিন্ধুর দ্বীন মোহাম্মদ শেখ

“নবীজির কবরের সামনে দাঁড়িয়ে আমি লজ্জা অনুভব করছি। আমি আমার সেই মারাত্মক ভুলের কথা স্মরণ করেছি যে ভুল আমি করেছিলাম সেই ইসলাম-অবমাননাকর ছায়াছবি নির্মাণ করে।”-যোগ করেন অনুতপ্ত দুর্ন।

তিনি বলেছেন, আমি আশা করছি, আল্লাহ আমাকে ক্ষমা করবেন ও আমার তওবা কবুল করবেন।

আর্নোড ভ্যান দুর্ন এর আগেও পবিত্র মক্কা ও মদীনা সফর করেছেন।

পবিত্র মদীনায় উপস্থিত হতে পেরে আনন্দ-অনুভূতির কথা তুলে ধরে টুইটারে কয়েকটি পোস্ট দিয়েছেন তিনি।

এক শিরোনামে দুর্ন লিখেছেন: মদীনায় পবিত্র রওজায় প্রার্থনা।

নিউজ ইভেন্ট ২৪ডটকম/২১ অক্টোবর ২০১৩/১০:৪৯/মেহেদী হাসান

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

Back to top button